রবিবার, ২২ মে ২০২২, ০৮:৪৫ অপরাহ্ন

নোটিশ :
✆ন্যাশনাল কল সেন্টার:৩৩৩| স্বাস্থ্য বাতায়ন:১৬২৬৩|আইইডিসিআর:১০৬৬৫|বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন:০৯৬১১৬৭৭৭৭৭
সংবাদ শিরোনাম
বোয়ালখালীর কালাইয়ার হাটে ডাঃ শাহাদাত হোসেন ও আবু সুফিয়ান এর ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় বোয়ালখালীর পশ্চিম কধুরখীলে মাওয়া বাগান বাড়িতে ইস্টার্ন ব্যাংকের এজেন্ট ব্যাংকিং উদ্বোধন বোয়ালখালী প্রেস ক্লাবের ঈদ পুনর্মিলনী২০২২ অনুষ্ঠিত ‘দৈনিক সমর’ এর পক্ষ থেকে সবাইকে জানাই ঈদ মুবারক এসএসসি পরীক্ষা শুরু ১৯ জুন, রুটিন প্রকাশ আল-ফালাহ কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ইফতার মাহফিল সম্পন্ন। গণজোয়ার সৃষ্টি করে ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটির উদ্দ্যেগে বোয়ালখালী উপজেলা আওয়ামীলীগের ইফতার মাহফিলে যোগদান বোয়ালখালী প্রেস ক্লাবের উদ্যোগে ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত ইমরানের ইনিংসের পতন নগর বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় সমসাময়িক কৌশল শীর্ষক মতবিনিময় কর্মশালা অনুষ্ঠিত

শুক্রবারই বন্ধ হচ্ছে অবৈধ মোবাইল ফোন

ফেইসবুকে নিউজটি শেয়ার করুন...

এস এম ইরফান নাবিল :
১ অক্টোবর ২০২১ শুক্রবার থেকে দেশে আর নতুন করে কোনো অবৈধ মোবাইল হ্যান্ডসেট ব্যবহারের সুযোগ থাকছে না। সরকারের রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে চোরাইপথে আমদানি করা কোনো মোবাইল ফোন আগামীকাল থেকে নতুন করে আর ব্যবহার করা যাবে না। বাজারে থাকা এমন কোন মোবাইল ফোন দেশের নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে চালু হলেই স্বয়ংক্রিয়ভাবে মেসেজ পাঠিয়ে তা বন্ধ হয়ে যাবে। তবে কারিগরি ত্রুটি বা অন্য কোনো কারণে বৈধ কোনো মোবাইল হ্যান্ডসেট চালু না হলে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) সাহায্য নেওয়া যাবে। রেজিস্ট্রেশনের পথ বাতলে দিতে পারবে সংশি­ষ্ট মোবাইল অপারেটরগুলো।
বৃহস্পতিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) বিটিআরসির ভাইস-চেয়ারম্যান সুব্রত রায় মৈত্রের সঙ্গে আলাপকালে এমন তথ্য জানা গেছে।
বিটিআরসির ভাইস-চেয়ারম্যান সুব্রত রায় মৈত্র সারাবাংলাকে বলেন, ‘ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্টার (এনইআইআর) সিস্টেমের ৩ মাসের পরীক্ষামূলক কার্যক্রম বৃহস্পতিবার শেষ হচ্ছে। কাল (১ অক্টোবর) থেকে অবৈধ মোবাইল সেট আর নতুন করে চালু করা যাবে না। কোনো মোবাইল সেট যদি বৈধ হয়, কোনো কারণে সমস্যা দেখা দেয়, তাহলে সেই গ্রাহক রেজিস্ট্রেশন করতে পারবে। আর অবৈধ সেট হলে গ্রাহক এসএমএস পাবে, এসএমএস পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সেটটি বন্ধ হয়ে যাবে। বৈধ মোবাইল ফোনের ক্ষেত্রে কোনো সমস্যা হলে গ্রাহক বিটিআরসিতে আসতে পারবে। রেজিস্ট্রেশনের জন্য আবেদন করতে পারবে। এ ছাড়া তারা সংশি­ষ্ট অপারেটরের কল সেন্টার বা কাস্টমার কেয়ারের সহায়তা নিতে পারবে। তারা পন্থা বাতলে দেবে।’
তিনি বলেন, ‘আমাদের মূল লক্ষ্য হচ্ছে অবৈধ বা নকল সেটের বাজারজাতকরণ বন্ধ করা।’
এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘আমাদের ডাটাবেজে প্রতিদিন বৈধ মোবাইল সেটের তথ্য যুক্ত হচ্ছে। এখন পর্যন্ত কতগুলো মোবাইল ফোনের রেজিস্ট্রেশন বা ডাটাবেজে যুক্ত হয়েছে তা বলা যাবে না। অনেকে বলেন বাজারে ১০ থেকে ১৫ শতাংশ অবৈধ বা নকল সেট রয়েছে।’
আরেক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘বাজারে আজ পর্যন্ত যেসব নকল বা অবৈধ সেট ছিল, ওই সব সেট সিম ব্যবহার করে চালু হয়েছে, সেইসব সেট আপতত বন্ধ হবে না। অর্থাৎ আজ পর্যন্ত যেসব সেট দেশের নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে চালু রয়েছে তা বন্ধ হচ্ছে না। তবে কাল থেকে কোনো অবৈধ সেট নতুন করে আর চালু হবে না। সিম দিয়ে সেটটি চালু করার সঙ্গে সঙ্গে স্বয়ংক্রিয়ভাবে মেসেজ আসার পর তা বন্ধ হয়ে যাবে। এর ফলে দেশে আর অবৈধভাবে রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে কোন সেট আসবে না। সরকার রাজস্ব হারাবে না।’
বিটিআরসি আরও জানিয়েছে, অবৈধ মোবাইল ফোনের ক্ষেত্রে এসএমএসে জানানো হবে, ‘সেটটি অবৈধ, কিছুক্ষণের মধ্যে সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যাবে’।
এর আগে, ১ জুলাই দেশে চালু হয় ন্যাশলাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিফিকেশন রেজিস্ট্রার (এনইআইআর) প্রযুক্তি। পরীক্ষামূলকভাবে তিন মাস এই কার্যক্রম চলার পর কাল থেকে পুরোদমে শুরু হচ্ছে এর যাত্রা। বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনে (বিটিআরসি) এই যন্ত্র বসানোর মধ্য দিয়ে কর ফাঁকি দিয়ে চোরাই পথে মোবাইল আমদানির দিন শেষ হতে চলছে। ১ অক্টোবর থেকে জেনে নিতে হবে মোবাইল ফোনের আইএমইআই নম্বরটি বিটিআরসিতে বসানো এনইআইআর ডিভাইসে যুক্ত আছে কিনা। অর্থাৎ অবৈধ পথে আসা মোবাইল হ্যান্ডসেট দেশে আর ব্যবহার করা যাবে না।
এর আগে বিটিআরসি জানিয়েছিল, দেশে বন্ধ হতে যাচ্ছে ক্লোন বা নকল আইএমইআই সংবলিত মোবাইল ফোন। ‘ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেনটিটি রেজিস্টার (এনইআইআর)’ প্রযুক্তি স্থাপনের মধ্য দিয়ে এ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে। সেইসঙ্গে ক্রেতাদের আইএমইআই যাচাই করে নতুন সেট কেনার পরামর্শ দিয়েছিল সংস্থাটি।
বিটিআরসি জানিয়েছে, নতুন মোবাইল ফোন কেনার সময় মেসেজ অপশনে গিয়ে KYD<space> ১৫ ডিজিটের আইএমইআই নম্বর লিখে ১৬০০২-তে পাঠাতে হবে। মোবাইল ফোনের বক্সে বা প্যাকেটে প্রিন্টেড স্টিকার থেকে অথবা *#০৬# ডায়াল করার মাধ্যমে তাৎক্ষকিভাবে সংশি­ষ্ট ফোন সেটের আইএমইআই জানা যায়।
প্রযুক্তিটি চালু হলে অবৈধ মোবাইল ফোনে প্রাথমিকভাবে নির্দিষ্ট একটি সিম ছাড়া অন্য কোনো সিম কাজ করবে না। এমনকি পরবর্তী সময়ে কোনো সিমই কাজ করবে না ওই ফোন সেটে। এতে গ্রাহকরা বাধ্য হয়েই অবৈধ ফোন ব্যবহার বন্ধ করবেন। অবৈধ মোবাইল আমদানি বন্ধ, চুরি, নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ ও রাজস্ব ফাঁকি ঠেকাতে এ উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে বিটিআরসি।

ফেইসবুকে নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন


Archive

© All rights reserved © 2021 Dainiksomor.net
Design & Developed BY N Host BD