শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ০৮:২৫ অপরাহ্ন

নোটিশ :
✆ন্যাশনাল কল সেন্টার:৩৩৩| স্বাস্থ্য বাতায়ন:১৬২৬৩|আইইডিসিআর:১০৬৬৫|বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন:০৯৬১১৬৭৭৭৭৭
সংবাদ শিরোনাম
বোয়ালখালী পশ্চিম জৈষ্ঠপুরায় ছৈয়দ ওসমান গণি (রঃ) ও মাহবুবুল হক ( রঃ)এর বার্ষিক ওরশ শরীফ ও পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সঃ) অনুষ্ঠিত মহান একুশে ফেব্রুয়ারি :শোকার্ত বুক, হাতে শ্রদ্ধার ফুল সন্দেহ নেই, একুশে ফেব্রুয়ারি একটি জীবন্ত সত্তা দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের কমিটির রূপরেখা অনেকটা প্রস্তুত, মহানগর ছাত্রলীগের তোড়জোড় বোয়ালখালীর আলহাজ্ব মোঃ জাহাঙ্গীর আলম দ্বিতীয় বারের মতো সিআইপি নির্বাচিত হওয়ায় দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত সারোয়াতলীতে মাস্টারদা সূর্য সেন ও বিপ্লবীতারকেশ্বর দস্তিদারের ৯১তম ফাঁসি দিবস পালন প্রতারণা ও অর্থ আত্মসাতের মামলায় জসিম উদ্দীন সিআইপি পলাতক ও স্ত্রী রুমা আকতারের বিরুদ্ধে সমন জারী প্রধানমন্ত্রীর স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে সম্মেলন ছাড়াই কমিটি পাচ্ছে চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগ সাবেক সাংসদ মোছলেম উদ্দিনের মৃত্যুবার্ষিকীতে চরণদ্বীপ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের উদ্যোগে দোয়া মাহফিল টিসিজেএ মিডিয়া কাপ ফুটবলে চ্যাম্পিয়ন আর টিভি একাদশ

লোহাগাড়ায় ভাবির ছুরিকাঘাতে দেবর খুন : নাছিমা ও স্বামী ইফসুফ আটক

ফেইসবুকে নিউজটি শেয়ার করুন...

কামরুল ইসলাম:
দক্ষিণ চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলায় বড়হাতিয়া ইউনিয়নের কুমিরাঘোনা জঙ্গলী পীর পাড়া এলাকায় পারিবারিক কলহকে কেন্দ্র করে ভাবির ছুরিকাঘাতে দেবর খুন হয়েছে বলে সংবাদ পাওয়া গেছে। নিহতের নাম ইউনুচ(৪০)। সে ওই এলাকার আলী আহমদের পুত্র। ২৩ জুন সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে এ ঘটনাটি ঘটেছে। বিষয়টি বড়হাতিয়া ইউপির চেয়ারম্যান এমডি জুনাইদ চৌধুরী নিশ্চিত করেছেন। এ ঘটনার পর পরই ঘাতক ভাবী নাছিমা আকতার(২৩) ও তার স্বামী ইউসুফকে গ্রেফতার করেছে লোহাগাড়া থানা পুলিশ। স্থানীয় ও পারিবারিক সুত্রে জানা যায়,উপজেলার বড়হাতিয়া জঙ্গলী পীর পাড়ার মোঃ ইউসুফ(৪৫) এর সংসারে ২ স্ত্রী। প্রথম স্ত্রী শহরে বাসায় থাকেন এবং দ্বিতীয় স্ত্রী নাছিমা আকতার(২৪) বড়হাতিয়ায় নিজ গ্রামে স্বামীর বাড়ীতে বসবাস করত। বিগত ৩ বছর পুর্বে ইউসুফ দ্বিতীয় স্ত্রী হিসেবে নাছিমা কে বিবাহ করে। পারিবারিক কলহের জের ধরে ঘটনার দিন বুধবার দুপুরে নাছিমা আকতার ও তার দেবর ইউনুছের সাথে ঝগড়াঝাঁটি সৃষ্টি হয়। ইউনুছ তিন সন্তানের জনক। দীর্ঘদিন সৌদি আরবে থাকতো। পরে নাছিমা আকতার তার স্বামীকে বিষয়টি অবহিত করলে ইউসুফ তার ছোট ভাই ইউনুছকে বিবাদী করে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। বিষয়টি তদন্ত করতে চুনতি পুলিশ ফাঁড়িকে দায়িত্ব দেওয়া হয়। চুনতি পুলিশের ফাঁড়ির এসআই শিশির বিন্দু ধরের নেতৃত্বে একটি টিম বিষয়টি তদন্ত করতে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

ফেইসবুকে নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন


Archive

© All rights reserved © 2021 Dainiksomor.net
Design & Developed BY N Host BD