মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৫:১৩ পূর্বাহ্ন

নোটিশ :
✆ন্যাশনাল কল সেন্টার:৩৩৩| স্বাস্থ্য বাতায়ন:১৬২৬৩|আইইডিসিআর:১০৬৬৫|বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন:০৯৬১১৬৭৭৭৭৭
সংবাদ শিরোনাম
আজারবাইজানে ফিদে ওয়ার্ল্ড ইয়ুথ অনুর্ধ্ব-১৬ দাবা অলিম্পিয়াড ১ অক্টোবর থেকে মার্কস অ্যাক্টিভ স্কুল দাবা প্রতিযোগিতা-২০২২ : ইস্পাহানী পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ চ্যাম্পিয়ন দূর্ভোগ এড়াতে অভিভাবকদের জন্য বসার স্থান করলেন এমপি মোছলেম উদ্দীন শেখ হাসিনা বাংলাদেশের সবচেয়ে সফল রাষ্ট্রনায়ক শিগগিরই তিস্তা চুক্তি সই হবে: আশা প্রধানমন্ত্রীর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান: জরিমানা ৫ হাজার বোয়ালখালীতে দুই শিশুর রহস্যজনক মৃত্যু শুক্র-শনিবার সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ: সরকারি অফিস সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৩টা মুলকুতুর রহমান সড়ক মহল্লা উন্নয়ন পরিষদ কমিঠি গঠিত আজ জাতীয় শোক দিবস: ‘বাংলাদেশের জনক’ বা বঙ্গবন্ধু বলাটা নিতান্তই কম বলা

বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের সর্বাগ্রে এগিয়ে আসার আহবান : কমান্ডার মোজাফফর আহমদ

বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির উপ-পাট ও বস্ত্র বিষয়ক সম্পাদক তারেক মাহমুদ চৌধুরী পাপ্পুকে ক্রেস্ট দিয়ে সংবর্ধনা প্রদান করছেন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা চট্টগ্রাম মহানগর ইউনিট কমান্ডার মোজাফফর আহমদসহ নেতৃবৃন্দ।

ফেইসবুকে নিউজটি শেয়ার করুন...

মনজুরুল আলম মনজু :
বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা চট্টগ্রাম মহানগর ইউনিট কমান্ডার মোজাফফর আহমদ বলেছেন, বাঙালি-বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে গৌরবময় মহান মুক্তিযুদ্ধ ও বীর মুক্তিযোদ্ধারা। অন্যায়, অবিচার, নির্যাতন, শোষণ, বৈষম্যের বিরুদ্ধে বাঙালি জাতি কখনো মাথানত করেনি। বাঙালির দীর্ঘ সংগ্রামের ইতিহাস রক্তে রঞ্জিত ও বিভীষিকাময়। আজকের বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অনেকদুর এগিয়ে। যে মাতৃভূমিকে ভালোবেসে মুক্তিযোদ্ধারা দেশকে স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্রে পরিণত করার জন্য জীবন বাজি রেখে যুদ্ধে অংশ নিয়েছিল সে আত্মত্যাগ কখনো বৃথা যেতে পারে না। বীর মুক্তিযোদ্ধাদের রক্তে রঞ্জিত বাংলাদেশের উন্নয়নে সর্বাগ্রে বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের এগিয়ে আসতে হবে। বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান তারেক মাহমুদ চৌধুরী পাপ্পু বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির উপ-পাট ও বস্ত্র বিষয়ক সম্পাদক মনোনীত হওয়ায় মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড চট্টগ্রাম মহানগর কমিটির সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড চট্টগ্রাম মহানগর কমিটির আহবায়ক শাহেদ মুরাদ সাকুর সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব কাজী মুহাম্মাদ রাজিশ ইমরানের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ।
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার মো শহীদুল হক চৌধুরী ছৈয়দ, সহকারী কমান্ডার সাধন চন্দ্র বিশ্বাস, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মো. সরওয়ার আলম চৌধুরী মনি। সভায় আরো বক্তব্য রাখেন খুলশী থানা কমান্ডার মোঃ ইউসুফ, চান্দগাও থানা কমান্ডার মোঃ কুতুব উদ্দিন চৌধুরী, সদরঘাট থানা কমান্ডার মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, বন্দর থানা কমান্ডার মোঃ কামরুল আলম জতু, আকবর শাহ থানার ডেপুটি কমান্ডার নূর উদ্দিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা মঈনুল হোসাইন, সাবেক কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা জাহিদুর রহমান সোহেল, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড চট্টগ্রাম মহানগর কমিটির যুগ্ম আহবায়ক মোহাম্মদ মিজানুর রহমান সজিব, আবু সাঈদ মাহমুদ রণি, মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন, সদস্য মোঃ আশরাফুল হক চৌধুরী, বিবি গুল জান্নাত, রিপন চৌধুরী, জয়নুদ্দিন জয়, মো ফরিদ উদ্দিন, মুক্তিযোদ্ধার সন্তান, মো সালাউদ্দিন, রাধা দেবী টুনটুন, জাবেদ পাটোয়ারী প্রমূখ।
সভায় সংবর্ধিত অতিথি তারেক মাহমুদ চৌধুরী পাপ্পু বলেন, যে অসাম্প্রদায়িক দেশ গড়ার স্বপ্নে বুকের তাজা রক্ত ঢেলে দিয়েছিল হাজার হাজার বীর বাঙালি সে স্বপ্ন বাস্তবায়নে তরুণ জনগোষ্ঠীকে যার যার অবস্থান থেকে কাজ করে যেতে হবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নে তরুণরাই সবচেয়ে বড় হাতিয়ার। এখনকার তরুণরা হয়তো মুক্তিযুদ্ধ দেখেনি কিন্তু তারাই যুদ্ধাপরাধারীদের বিচারের দাবিতে ঐক্যবদ্ধ হয়েছে। তরুণ সমাজকে কোনো অদৃশ্য শক্তি যাতে বিপথে পরিচালিত করতে না পারে সে ব্যাপারে নীতিনির্ধারকদের সজাগ থাকতে হবে। প্রতিক্রিয়াশীলতা, উগ্র মৌলবাদ ও জঙ্গিবাদ রুখতে তরুণ সমাজকেই এখন অতন্দ্র প্রহরীর মতো অবতীর্ণ হতে হবে। এক কথায়, সন্ত্রাস ও জঙ্গিমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। তিনি মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।
প্রধান বক্তা চৌধুরী ফরিদ বলেন, অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি, মাথাপিছু আয়, মানব উন্নয়ন সূচক ও অর্থনীতির বিভিন্ন সূচকে বাংলাদেশ উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি লাভ করছে। ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত, অসাম্প্রদায়িক ও দুর্নীতিমুক্ত দেশ গড়তে এখন সবাইকে অঙ্গীকারাবদ্ধ হতে হবে। তরুণদের স্বপ্ন দেখাতে হবে। তরুণদের কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করে দিতে হবে। তরুণদের উদ্যোক্তা হওয়ার পথে সব বাধা অপসারণ করতে হবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণকারী তরুণ সমাজ নিজ নিজ অবস্থান থেকে যত বেশি সক্রিয় হবে স্বপ্নের ডিজিটাল সোনার বাংলা গড়তে জাতি তত আত্মবিশাসী হবে।

ফেইসবুকে নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন


Archive

© All rights reserved © 2021 Dainiksomor.net
Design & Developed BY N Host BD