মঙ্গলবার, ০৩ অক্টোবর ২০২৩, ০৫:২০ অপরাহ্ন

নোটিশ :
✆ন্যাশনাল কল সেন্টার:৩৩৩| স্বাস্থ্য বাতায়ন:১৬২৬৩|আইইডিসিআর:১০৬৬৫|বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন:০৯৬১১৬৭৭৭৭৭
সংবাদ শিরোনাম
ড. বেনজীর আহমেদ, বিপিএম (বার) এর জন্মদিনে দৈনিক সমর পত্রিকার শুভেচ্ছা উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে শেখ হাসিনার কোনো বিকল্প নেই: জেলা পিপি “শেখ হাসিনা দেশের গণমানুষের আশা-জাগানিয়া বাতিঘর ও অভিভাবক”-এম এ মোতালেব সিআইপি দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা : বিলুপ্ত সংগঠনটি ছিল ব্যবসায়ী সংগঠন শুভ জন্মদিন : শেখ হাসিনা আমাদের উন্নয়ন এবং অর্জনের রোল মডেল চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে চার লেনে আদৌ উন্নীত হবে কি? বিশ্বতানে উপদেষ্টা বরণ ও ঘরোয়া বৈঠকীতে গজল সন্ধ্যা আগামী নির্বাচনে দলকে জয়ী করতে দক্ষিণ জেলা আ’লীগ প্রস্তুত রয়েছে আধুনিক বোয়ালখালী গড়ার সম্মিলিত প্রয়াসে বোয়ালখালী ফোরাম চট্টগ্রাম (আংশিক) কমিটি গঠন ইন্টার ইউনিভার্সিটি দলগত দাবা চ্যাম্পিয়নশিপ শুরু

পটিয়ায় ৭ শিক্ষকের বদলির আদেশ হাইকোর্টে স্থগিত

এস এম ইরফান নাবিল:

চট্টগ্রামের পটিয়া পৌর সদরের শশাংকমালা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাত শিক্ষকের বদলির আদেশ স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। বুধবার বিচারপতি সরদার মুহাম্মদ রাশেদ জাহাঙ্গীর ও মুহাম্মদ বজলুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

এর আগে গত ১৩ জুন ওই বিদ্যালয়ের ১৭ জন শিক্ষকের মধ্যে প্রধান শিক্ষকসহ সব শিক্ষককে একযোগে বদলি করে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। তাদের মধ্যে সাতজন শিক্ষক বদলি আদেশ বাতিলের জন্য উচ্চ আদালতে রিট আবেদন করেন।

রিটকারী সাত শিক্ষক হলেন- মৌসুমী দেব, সুমন দাশ, আকতার জাহান চৌধুরী, আকলিমা বেগম, মোহাম্মদ নাছের উদ্দিন, তাহমিনা আক্তার ও শর্মিলা দাশ।

আবেদনকারীদের আইনজীবী রনজীত কুমার ধর বলেন, পটিয়ার শশাংকমালা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বদলি কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। আগামী তিন সপ্তাহের মধ্যে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব, আইন মন্ত্রণালয়ের সচিব, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক, চট্টগ্রাম জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ও পটিয়া উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাসহ সাতজনকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি আদালত বদলীকৃত সাত শিক্ষকের বদলির আদেশ আগামী তিন মাসের জন্য স্থগিত করেছেন।

প্রসঙ্গত, দীর্ঘদিন ধরে পটিয়া পৌর সদরের শশাংকমালা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ হারুনুর রশিদ ও সহকারী শিক্ষিকা উম্মে হাবিবা চৌধুরী এবং বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সহ-সভাপতির মধ্যে বিরোধ চলছিল। এতে বিদ্যালয়ের শিক্ষার পরিবেশ মারাত্মকভাবে বিঘ্নিত হয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত ১৩ জুন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক নাসরিন সুলতানা স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে ওই বিদ্যালয়ের ১৭ শিক্ষকের বদলির আদেশ দেওয়া হয়।

আপনার মন্তব্য লিখুন


Archive

© All rights reserved © 2021 Dainiksomor.net
Design & Developed BY N Host BD