বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০৬:৪৭ অপরাহ্ন

নোটিশ :
✆ন্যাশনাল কল সেন্টার:৩৩৩| স্বাস্থ্য বাতায়ন:১৬২৬৩|আইইডিসিআর:১০৬৬৫|বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন:০৯৬১১৬৭৭৭৭৭
সংবাদ শিরোনাম
২৮ কোটি টাকা ব্যয়ে চসিকের ৬ তলা নগর ভবনের নির্মাণ কাজের উদ্বোধন বাধ্যতামূলক কৃষির মাধ্যমে ২ থেকে ২.৫ কোটি লোকের কর্মসংস্থান করে দেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করা সম্ভব নানা আয়োজনে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের আনন্দ সম্মিলন সম্পন্ন শ্রমিকদের ঠকিয়ে অর্থনীতির বিকাশ নিশ্চিত করা যাবে না বোয়ালখালী ফোরাম চট্টগ্রামের উদ্যোগে বিশুদ্ধ পানি ও খাবার স্যালাইন বিতরণ সম্পন্ন সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভাণ্ডারী ট্রাস্টের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভাণ্ডারী ট্রাস্টের মহিলা মাহফিল সম্পন্ন বৃহত্তর চট্টগ্রামে পরিবহন ধর্মঘট স্থগিত কালুরঘাট ফেরিতে হিট স্ট্রোকে মাদ্রাসা শিক্ষকের মৃত্যু তীব্র তাপদাহে সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভাণ্ডারী ট্রাস্টের শরবত বিতরণ

প্রবাসীর কোটি টাকার জায়গা দখলের চেষ্টা: বান্দরবান পুলিশ সুপারের কাছে অভিযোগ করেছে প্রবাসী সুলাল কান্তি ঘোষ

ফেইসবুকে নিউজটি শেয়ার করুন...

সমর ডেস্ক:
‘সিএমপির ট্রাফিক সার্জেন্ট ছোটন তংচংগ্যা ও জেলফেরত আসামি স্যামসাং বাবুল সংঘবদ্ধ হয়ে প্রবাসীর দেড় কোটি টাকার সম্পত্তি দখলের চেষ্টার অভিযোগ গেল বান্দরবান পুলিশ সুপারের কাছে। তবে এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোনো সুফল পাননি প্রবাসী সুলাল কান্তি ঘোষ। আবার সার্জেন্ট ছোটনও এ বিষয়ে কথা বলতে রাজি নন।
বাবুলকে ভূমিদস্যু আখ্যা দিয়ে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, বান্দরবান জেলার বালাঘাটা বাজার এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে জোর করে জায়গা দখলের মাধ্যমে এলাকার মানুষকে অতিষ্ঠ করে তুলেছে জেলফেরত আসামি বাবুল বিশ্বাস ও সিএমপির ট্রাফিক পশ্চিম বিভাগের সার্জেন্ট ছোটন তংচংগ্যা। গত ১৪ নভেম্বর রাত আনুমানিক ১১টার দিকে ছোটন, বাবুল ও আরো ৫ থেকে ৬ জন বালাঘাটা এলাকার জামে মসজিদের পাশে প্রবাসী সুলাল কান্তি ঘোষের বাড়িতে প্রবেশ করেন। এসময় তারা জায়গা পরিমাপ করেন।
এর আগে অভিযুক্তরা ২০১২ সালে অভিযোগকারীর ছেলে সুহাশীষ ঘোষকে খুন করে দুর্ঘটনা বলে প্রচার চালায়। এছাড়া ২০১৮ সালে জায়গার মামলায় আদালতের রায় বিপক্ষে যাওয়ায় দেশি অস্ত্র নিয়ে হামলার কথাও অভিযোগে উল্লেখ করা হয়। ওই সময় পুলিশ এসে তাদের উদ্ধার করে। পরবর্তীতে অভিযুক্তরা দোষী প্রমাণিত হওয়ার পর ক্ষমা চাইলে সংশোধনের জন্য ক্ষমা করে দেন সুলাল কান্তি ঘোষ।
প্রবাসী সুলাল কান্তি ঘোষ বলেন, আমি প্রবাসে থাকার কারণে তারা আমার বাড়ি দখলের অপচেষ্টা করছে। এজন্য রাতের আঁধারে হানা দিচ্ছে। অথচ এ জমি নিয়ে বিরোধের জেরে মামলায় রায় আমার পক্ষে এসেছে। বর্তমানে মামলাটি সুপ্রিম কোর্টে আছে। মামলা চলাকালীন অবস্ায় সার্জেন্ট ছোটন তংচংগ্যা ও জেলফেরত আসামি স্যামসাং বাবুল সংঘবদ্ধ হয়ে জবরদখলের চেষ্টা করছেন।
এদিকে অভিন্ন হয়রানির শিকার হয়েছেন বান্দরবানের প্রবীর শীল, বাসন্তী রানী শীল, মানিক দাস, আশিস দে, জয় দে ও কনিকা রানী ঘোষ।
অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে সার্জেন্ট ছোটন তংচংগ্যা আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, ‘এ বিষয়ে আমি অফিসিয়ালভাবে জানাবো।’ এরপর তিনি আর কোনো কথা না বলে ফোনকল কেটে দেন।
অভিযোগ সম্পর্কে জানতে বান্দরবান পুলিশ সুপারকে ফোন করা হলেও তিনি কল রিসিভ করেননি।

ফেইসবুকে নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন


Archive

© All rights reserved © 2021 Dainiksomor.net
Design & Developed BY N Host BD