বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ০৬:৫১ অপরাহ্ন

নোটিশ :
✆ন্যাশনাল কল সেন্টার:৩৩৩| স্বাস্থ্য বাতায়ন:১৬২৬৩|আইইডিসিআর:১০৬৬৫|বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন:০৯৬১১৬৭৭৭৭৭
সংবাদ শিরোনাম
শিয়াদের বার্ষিক শোক দিবস ওমানে গুলিতে ছয়জন নিহত : মার্কিন দূতাবাসে সতর্কতা কোটাবিরোধী আন্দোলন: দিনভর সংঘর্ষে নিহত ৬ : চট্টগ্রামে ৩ স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা, স্থগিত বৃহস্পতিবারের এইচএসসি পরীক্ষা বোয়ালখালী প্রেস ক্লাব নেতৃবৃন্দের সাথে নবাগত ইউএনও’র সৌজন্য সাক্ষাৎ উল্লেখিত প্রকৃত জায়গার মালিক মো: সরোয়ার আলম ৯৬,০০০ অবৈধ বাংলাদেশি কর্মীকে বৈধতা দেবে ওমান বোয়ালখালী ধোরলার ইউসুফ মিয়া’র জানাজা ও দাফন সম্পন্ন সহজ ম্যাচ কঠিন করে জিতলো বাংলাদেশ ঈদুল আজহা ১৭ই জুন চট্টগ্রাম-কক্সবাজারে ৯ নম্বর মহাবিপৎ সংকেত, ১২ ফুট উচ্চতায় জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা, সন্ধ্যায় আঘাত হানতে পারে ঘূর্ণিঝড় রিমাল

ঈদের পর কালুরঘাট সেতুর মেরামতের কাজ শুরু : সময় লাগবে ৮ মাস

ফেইসবুকে নিউজটি শেয়ার করুন...

এস এম ইরফান নাবিল :
চট্টগ্রামের পুরনো কালুরঘাট সেতুর সংস্কার কাজ আট মাসের মধ্যে শেষ হবে বলে জানিয়েছেন এক কর্মকর্তা।
রোববার সেতুটি সংস্কারের জন্য ম্যাক্স ইনফ্রাস্ট্রাকচার লিমিটেডকে ঠিকাদার নিয়োগ করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে।
একটি টেন্ডার প্রক্রিয়া অনুসরণ করে, ম্যাক্স ইনফ্রাস্ট্রাকচার লিমিটেডকে সর্বনিম্ন দরদাতা হিসেবে নির্বাচিত করা হয় এবং বাংলাদেশ রেলওয়ে (পূর্বাঞ্চল) এর সাথে চুক্তি স্বাক্ষর করে।
বাংলাদেশ রেলওয়ের (পূর্বাঞ্চল) প্রধান প্রকৌশলী মোঃ আবু জাফর মিয়া জানান, ম্যাক্স ইনফ্রাস্ট্রাকচার লিমিটেডের সাথে চুক্তিতে আগামী ৮ মাসের মধ্যে সেতুটি সংস্কার করা হবে।
ঠিকাদার সেপ্টেম্বরের মধ্যে কক্সবাজারের সাথে সরাসরি রেল সংযোগ স্থাপনের জন্য সেতুর স্প্যান এবং রেলপথ মেরামতকে অগ্রাধিকার দেবে। একই সাথে কোম্পানিটি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে অন্যান্য কাজ যেমন যানবাহনের জন্য রাস্তা এবং হাঁটার পথের কাজ শেষ করবে।
৪৩ কোটি টাকা মূল্যের এই প্রকল্পের লক্ষ্য সেতুটিকে ভারী ট্রেন ও যানবাহনের উপযোগী করে তোলা।
তবে সেপ্টেম্বরে ঢাকা-কক্সবাজার ট্রেন সার্ভিসের আসন্ন উদ্বোধনের কারণে সেতুর মূল কাঠামোর সংস্কারকে অগ্রাধিকার দিতে ঠিকাদারকে অতিরিক্ত ৩ মাস সময় দেওয়া হবে।
খ্যাতিমান পর্যটন নগরী কক্সবাজারে রেল সংযোগ প্রকল্পের সময়সীমা চলতি বছরের ডিসেম্বরে ঘনিয়ে আসছে।
প্রকল্পের ৮৫% কাজ শেষ হওয়া সত্ত্বেও এবং রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন সেপ্টেম্বরে ট্রেন সার্ভিস উদ্বোধনের ঘোষণা দিলেও কিছু চ্যালেঞ্জ দেখা দিয়েছে।
আনুমানিক ২০ কিমি ট্র্যাক এখনও স্থাপন করা প্রয়োজন, এবং প্রকল্পের ১৫% এখনও সম্পন্ন করা প্রয়োজন, ট্রেন পরিষেবা সময়মতো চালু করতে বাধা দেয়।
তদুপরি, পুরানো কালুরঘাট সেতুটি কক্সবাজারের সাথে সরাসরি ট্রেন সংযোগ স্থাপনে একটি উল্লেখযোগ্য বাধা তৈরি করেছে।
পুরনো কালুরঘাট সেতুর বদলে নতুন সেতু নির্মাণে বিলম্ব সামাল দিতে বাংলাদেশ রেলওয়ে পরামর্শক হিসেবে বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) অধ্যাপকদের একটি দলের সহায়তা চেয়েছে।
তাদের নির্দেশনা অনুসরণ করে, একটি প্রস্তাব উত্থাপন করা হয়েছিল, যেখানে কমপক্ষে ৬০ কোটি টাকার সংস্কার ব্যয়ের পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল, যা নতুন সেতুর নির্মাণ শেষ না হওয়া পর্যন্ত ভারী ট্রেনগুলিকে বিদ্যমান সেতু ব্যবহার চালিয়ে যেতে সক্ষম করবে।
প্রাথমিকভাবে, বাংলাদেশ রেলওয়ে মেরামতের জন্য জুন মাসে কালুরঘাট সেতু দিয়ে ট্রেন ও যানবাহন চলাচল বন্ধ রাখার পরিকল্পনা করেছিল।
তবে বিলম্বিত চুক্তি স্বাক্ষর এবং আসন্ন ঈদুল আজহায় বন্ধের বিষয়টি স্থগিত করা হয়েছে।
ঠিকাদার ইতোমধ্যে সেতু এলাকায় আনুষঙ্গিক যন্ত্রপাতি বসানোর কাজ শুরু করেছে এবং ঈদের পর মূল মেরামতের কাজ শুরু হবে।
এদিকে বিকল্প ব্যবস্থা করতে কর্ণফুলী নদীর সেতু সংলগ্ন ফেরি জেটি নির্মাণ করেছে সড়ক ও জনপথ বিভাগ।

এদিকে পুরনো কালুরঘাট সেতুর বদলে নতুন সেতু নির্মাণে নানা জটিলতা দেখা দিয়েছে। সমস্যাগুলোর মধ্যে রয়েছে সঙক-কাম-রেল সেতুর দাবিতে স্থানীয়দের দাবি, সেতুর উচ্চতা নিয়ে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডবি­উটিএ) আপত্তি, বিদেশি ঋণদাতাদের কাছ থেকে সম্মতি পেতে বিলম্ব, দ্বি-পর্যায়ের সম্ভাব্যতা অধ্যয়ন এবং নকশা পরিবর্তন।
উপরন্, রেলওয়ের প্রকৌশল ও পরিকল্পনা বিভাগের মধ্যে অদূরদর্শীতার অভিযোগ রয়েছে।
বাংলাদেশ রেলওয়ে অনুমান করে যে একটি নতুন সেতু নির্মাণে কমপক্ষে সাত থেকে আট বছর সময় লাগবে, যা দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে কক্সবাজার পর্যন্ত ট্রেন চলাচল ব্যাহত করবে।

ফেইসবুকে নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন

Please Share This Post in Your Social Media

Archive

© All rights reserved © 2021 Dainiksomor.net
Design & Developed BY N Host BD