বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০৭:১৩ অপরাহ্ন

নোটিশ :
✆ন্যাশনাল কল সেন্টার:৩৩৩| স্বাস্থ্য বাতায়ন:১৬২৬৩|আইইডিসিআর:১০৬৬৫|বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন:০৯৬১১৬৭৭৭৭৭
সংবাদ শিরোনাম
২৮ কোটি টাকা ব্যয়ে চসিকের ৬ তলা নগর ভবনের নির্মাণ কাজের উদ্বোধন বাধ্যতামূলক কৃষির মাধ্যমে ২ থেকে ২.৫ কোটি লোকের কর্মসংস্থান করে দেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করা সম্ভব নানা আয়োজনে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের আনন্দ সম্মিলন সম্পন্ন শ্রমিকদের ঠকিয়ে অর্থনীতির বিকাশ নিশ্চিত করা যাবে না বোয়ালখালী ফোরাম চট্টগ্রামের উদ্যোগে বিশুদ্ধ পানি ও খাবার স্যালাইন বিতরণ সম্পন্ন সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভাণ্ডারী ট্রাস্টের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভাণ্ডারী ট্রাস্টের মহিলা মাহফিল সম্পন্ন বৃহত্তর চট্টগ্রামে পরিবহন ধর্মঘট স্থগিত কালুরঘাট ফেরিতে হিট স্ট্রোকে মাদ্রাসা শিক্ষকের মৃত্যু তীব্র তাপদাহে সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভাণ্ডারী ট্রাস্টের শরবত বিতরণ

ইসলামী শরিয়া ভিত্তিক সমাজ গঠনের কোনো বিকল্প নেই : মাওলানা ফরিদুল আলম শাহ নগরী

ফেইসবুকে নিউজটি শেয়ার করুন...

কাজী নাসের :
মুলকুকুতুর রহমান সড়ক মহল্লা উন্নয়ন পরিষদের ১ম বর্ষপুর্তি গত ২১ জুলাই অনুষ্টিত হয়েছে । এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কাচা রাস্তা মসজিদ আল ইব্রাহিম মসজিদের খতিব ও বায়তুল জান্নাত ঈদগা মাদরাসা”র প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক আলহাজ্ব মাওলানা ফরিদুল আলম শাহ নগরী সাহেব । প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, ইসলামী শরিয়া ভিত্তিক সমাজ গঠনের কোনো বিকল্প নেই । কোরান সুন্নাহর আলোকে সমাজ প্রতিষ্ঠিত হলে সেখানে শিরক, বেদাহ, পরনিন্দা কিছু থাকেনা । আর তখনই একটি আদর্শ সমাজ গড়া সম্ভব । এ সমাজে একটি মাদরাসা প্রতিষ্ঠিত হয়েছে , যা এই মাদরাসার মাধ্যমে সমাজের সব কলুষতা দূর হয়ে যাবে । তিনি সমাজের উত্তরোত্তর উন্নয়ন ও প্রতিটি মানুষের প্রতি আল্লাহ ভীতি আসতে সকলের জন্য দোয়া কামনা করেন এবং প্রতিষ্ঠিত মাদরাসার প্রতি সকলের দৃষ্টি কামনা করেন ।
মুলকুকুতুর রহমান সড়ক মহল্লা উন্নয়ন পরিষদের সভপতির বক্তব্যে মো: সাঈদ হোসেন বলেন, একটি সমাজকে সংগঠিত করতে হলে সমাজের সকল শ্রেণীর লোককে এগিয়ে আসতে হবে। আজকে আমরা সমাজবদ্ধ হয়েছি বলেই সমাজ থেকে অনৈতিক কাজগুলো দূর করতে পেরেছি। এলাকায় একটি বদনাম ছিল, এখানে মদ, জুয়া আসর ছিল। ইনশাআল্লাহ গত এক বছর থেকে মদ, জুয়া এ সমাজে আর নেই। ন্যায় বিচারের সার্থে আমরা একটি কার্যকরী কমিটি গঠন করে দিয়েছি তারা ইতিমধ্যেই তাদের কাজ শুরু করেছে । এলাকায় কোন ধররেন অগঠন না ঘটে এবং এখানে ন্যায় বিচার সমুন্নত হয় তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। সাঈদ হোসেন বলেন, আমাদের প্রতি দায়িত্ব অর্পিত করার পর আমরা চেষ্টা করেছি সমাজের উন্নয়নের জন্য এবং অনেকগুলো পদক্ষেপ গ্রহণ করেছি। যাতে এ সমাজ চট্টগ্রাম শহরে একটি আদর্শ সমাজ হিসাবে গড়ে উঠে। আমাদের বয়স মাত্র ১ বছর, এই ১ বছরের পুর্তিতে আমরা সততা ওসচ্ছতার প্রমাণ রেখেছি, তিনি বলেন, এই ১ বছরে কিছু উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ড না হলেও আগামীতে আমরা বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করেছি সম্বিলিত ভাবে। একটি সমাজকে পুনাঙ্গ রূপ দিতে গেলে সকলের আর্থিক এবং পরামর্শ একান্ত প্রয়োজন। আমাদের আর্থিক দিকটা বিবেচনা করতে হবে। সবাইকে সঠিক সময়ে চাঁদাটা পরিশোধ করতে হবে। তাতে সমাজের সমস্যাগুলো সমাধান করতে সুবিধা হবে, তিনি বলেন, যারা আর্থিকভাবে সচ্চল তারা এই কমিটিকে এগিয়ে নিতে সহযোগিতা করতে পারে, তাদের উচিত সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়া। কারণ এই আর্থিক সহযোহিতা এই সমাজের গরিব-দুঃখী, অসচ্চল এতিম ও মেদাবী ছাত্র-ছাত্রীদের দেওয়া হবে।
বিশিষ্ট সমাজ সেবক মুলকুতুর রহমান সড়ক মহল্লা উন্নয়ন পরিষদ সাধারন সম্পদক জনাব জসিম উদ্দিন বক্তব্যে বিভিন্ন পরিকল্পনায় সকলের উদ্দেশে বলেন,মুলকুতুর রহমান সড়ক মহল্লা উন্নয়ন পরিষদ পরিষদ কর্তৃক আয়োজিত আজকের সাধারণ সভা অনুষ্ঠানে উপস্তি আসন গ্রহণকারী সম্মানিত গুণীজন, সম্মানিত প্রধান উপদেষ্টা, সম্মানিত সভাপতি, সম্মানিত অতিথি ও আমার মহল্লা পরিষদের সকল সাধারণ সদস্যবৃন্দ ও মহল্লায় বসবাসকারী সকলকে জানাই আসসালামু আলাইকুম। আমি অত্র পরিষদের সাধারণ সম্পাদক, আশা করি আপনারা ভালো আছেন। আবারো আজকের অনুষ্ঠানে উপস্তি সকলকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা।
শুরুতেই আমি সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করতে চাই। এই অনুষ্ঠানে আপনারা যথাসময়ে উপস্থিত হয়েছেন তাই আমরা আজ আনন্দিত। কারণ আজ পরিষদের প্রথম বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।
বিগত ২৩ জুন ২০২২ এলাকার সংঘটিত অনাকাক্ষিত একটি ঘটনার মধ্যে সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এই পরিষদের যাত্রা শুরু হয়। ১ জুলাই ২০২২ এই কমিটির আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম আরম্ভ হতে থাকে। এই মাহেন্দ্রক্ষণে গঠিত উপদেষ্টা পরিষদ ও মহল্লাবাসীর কণ্ঠ ভোটে দুই বৎসর মেয়াদে ২০ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটির আত্মপ্রকাশ ঘটেযা “মুলকুতুর রহমান সড়ক মহল্লা উন্নয়ন পরিষদ” হিসেবে নামকরণ করা হয়। আপনারা আরো জানেন যে, মূলকতুর রহমানের সুযোগ্য নাতি ও সমাজসেবক জনাব সাইদ হোসেন সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণ করেন। পরিষদ ১৬/০৭/২০২২ ইং প্রথম সভা আহবান করেন। বিগত এক বৎসর পরিষদের সম্পাদিত কর্মকান্ড ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা আপনাদের সদয় অবগতির জন্য তুলে ধরছি।
১। উক্ত সভায় পরিষদের সিদ্ধান্তে ৫ সদস্য বিশিষ্ট উপ কমিটি গঠন করা হয়। যার মাধ্যমে সেবা প্রাপ্তি সহজ ও দ্রুত বিচারিক কাজ সমাপ্ত করা যায়। যাহা এখনও চলমান আছে।
২। মানবদেহেরসবচেয়ে শক্ত ভিত্তি মেরুদন্ড। মেরুদন্ড বিহীন সোজা হয়ে দাঁড়ানো যায় না। তদ্রুপ সংগঠনের ভিত্তি হলো গঠনতন্ত্র। গঠনতন্ত্র ছাড়া সমাজ পরিচালনা করা সম্ভব নয়। পরিষদ দীর্ঘ সময় ধরে ব্যাপক পর্যালোচনা করে খুঁটিনাটি বিধিবিধান ধারা উপধারা ভাষা, শব্দ চয়নের মাধ্যমে পরিষদের জন্য যুগোপযুগী সার্বজনীন গ্রহণযোগ্য বিধি মোতাবেক গঠনতন্ত্র প্রণয়ন করি। যাহা মুলকুতুর রহমান সড়ক মহল্লা উন্নয়ন পরিষদ নামে নামকরণ করা হয়।
৩। পরিষদের আয়-ব্যয়ের হিসাব প্রক্রিয়া সহজ, সঠিক ও জবাবদিহীতামূলক রাখার জন্য অর্থ সম্পাদকসহ যৌথ ৩ জনের স্বাক্ষরে ব্যাংক হিসাব চালুর ব্যবস্থা করি।
৪। মহল্লা পরিষদ ও ২৫নং রামপুর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র জনাব আবদুর ছবুর লিটনের কার্যালয়ের সাথে সমন্বয় করে যে কোন বিষয়ে পরিষদ যৌথ কাজ সম্পাদন করে থাকেন। যেমন-ওয়ারিশ সনদ, মৃত্যু সনদ, দাফন সনদ, জাতীয়তা সনদ ইত্যাদি উভয়ের সহযোগিতায় নিষ্পত্তি করা হয়।
৫। মহল্লায় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন, ময়লা-আবর্জনা, পয়ঃনিষ্কাশন, লাইটিং ব্যবস্থা সুষ্ঠভাবে পরিচালনার জন্য আমরা ২৫ নং রামপুর ওয়ার্ড সচিব এর সাথে নিয়মিত ফোনে তথ্য আদান প্রদান করে থাকি।
৬। গত রমজানে ২০২৩ পরিষদের ব্যানারে আমরা অসহায় ও দুস্দের মাঝে ৫ সদস্যের পরিবারের জন্য ১ মসের চাল, ডাল, তেল সহ নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রি বিতরণ করি। উক্ত মহল্লায় ১৫টি পরিবারের কাছে। যার অর্থ সরবরাহ করে পরিষদের সদস্যবৃন্দ।
৭। গত ঈদুল আয্হা ২০২৩ পরিষদের নিজ উদ্যেগে মহল্লায় পরিচালিত বাইতুল জান্নাত ঈদগাঁ মাদ্রাসার জন্য মহল্লা বাসীর কাছ থেকে কোরবানি পশুর চামড়া সংগ্রহ করে পরিষদের সদস্যদের স্বেচ্ছাশ্রম এর মাধ্যমে বিক্রিত টাকা মাদ্রাসা ফান্ডে জমা করা হয়।
৮। পরিষদের আয়োজনে গুণিজন/এস.এস.সি./এইচ.এস.সি. কৃতি শিক্ষার্থীদের সম্মাননা স্মারক দেওয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করি। তাদেরকে এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হবে।
৯। পরিষদের অনুমতিক্রমে মুলকুতুর রহমান স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত টুর্নামেন্টে ১২টি দল অংশগ্রহণ করে এলাকার প্রয়াত ব্যক্তিবর্গ এর নামে দলগুলো গঠন করা হয়। প্রতিটি দলে লীগ পদ্ধতিতে খেলে দুই দল ফাইনাল এ যোগ্যতা অর্জন করে। এ টুর্নামেন্টের সার্বিক সহযোগিতায় ছিল মহল্লায় বসবাসকারী জনাব সাইফুল ইসলাম ও প্রধান সমন্বয়ক অনি পরিষদের নির্দেশক্রমে সুন্দর, সুশৃখল ফুটবল টুর্নামেন্ট পরিচালনা করেন তারা। বিজয়ী চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপকে এই অনুষ্ঠানে ট্রফি প্রদান করা হবে।
১০। আজ সাধারণ সভাসহ এক বৎসরের মোট ৬টি সভা অনুষ্ঠিত হলো।
১১। গত এক বৎসর এ লিখিত অভিযোগ করে সেবা গ্রহীতা, বিচার প্রার্থী মহল্লাবাসী। এর মধ্যে পারিবারিক সম্পত্তি বিরোধ পারিবারিক বিভিন্ন সমস্যা বিষয়ে ৫টি অভিযোগ পরিষদে জমা হয়। উক্ত অভিযোগ ৩টি বিষয়ে নিষ্পত্তি করে পরিষদ। ১টি বিষয়ে থানাকে জানানো হয় প্রয়োজনীয় ব্যবস্ গ্রহণের জন্য, ১টি বিষয়ে কাউন্সিলর কার্যালয়ে প্রেরণ করে অধিকতর বিচারে জন্য।
১২। ৫ সদস্য বিশিষ্ট উপ- কমিটির কাছে ছোট খাটো অনেক বিষয়ে মহল্লা বসাবাসকারী মধ্য হতে অভিযোগ আসে। তাহা খুবই সহজে নিজ দায়িত্বে উপ-কমিটি অভিযোগ শুনে নিমিষেই নিষ্পত্তি করে দেয়। ও সামাজিক অনুষ্ঠান বিয়ে, জিয়াফত, বাৎসরিক বিভিন্ন ধর্মীয় অনুষ্ঠান পরিষদ উপ-কমিটি সর্বদাই সুন্দরভাবে সকলের সহযোগিতায় অনুষ্ঠান পরিচালনা করে।
১৩। দাওয়াতপত্রে আপনাদের পরিষদের মাসিক সদস্য চাঁদা ১ বৎসরের বকেয়া হিসাব উল্লেখ করেছি। যার যার হিসাবে বকেয়া আছে আশা করি আপনারা পরিশোধ করবেন। চলতি মাস থেকেনিয়মিতভাবে বকেয়া টাকা সহপ্রতি মাসেমাসিক চাঁদা পরিশোধ করে মহল্লার কার্যক্রমকে সদা উজ্জিবিত রাখবেন।কারণ আপনার টাকায় আমরা ভাড়া বাসায় পরিষদেরকার্যালয়ে কার্যক্রম শুরু করেছি। যা ভাড়া বাবদ পরিষদ হিসাব থেকে নগদ টাকা পরিশোধ করিতে হয় ৪০০০/-।
১৪। অর্থ সম্পাদক থেকে প্রেরিত ১ বৎসর হিসাবে পরিষদে বর্তমানে……….. টাকা। সদস্য চাঁদা ও বিভিন্ন অনুষ্ঠানের সামাজিক চাঁদা থেকে প্রাপ্য পরিষদের হিসাবেটাকা জমা আছে।
আমি বক্তব্য আর দীর্ঘায়িত করব না। আরো বক্তা আছে তাদের কথা শুনবেন আমি পরিষদের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা জানিয়ে বক্তব্য শেষ করবো।
পরিকল্পনা
০১। মুলকুতুর রহমান সড়ক মহ্লা উন্নয়ন পরিষদ নামে স্থায়ী শিক্ষা ট্রাস্ট চালু করে গরীব, মেধাবী, দুস্থদের নিয়মিত শিক্ষাবৃত্তি ও মহল্লার গুরুতর অসুস্থ ব্যক্তির চিকিৎসা জন্য ট্রাস্ট থেকে আর্থিক অনুদান দেওয়ার ব্যবস্থা করা ও একটি সঞ্চয়ী হিসাব ট্রাস্টের নামে চালুু করা।
০২। সকল মেধাবী শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষা সম্মাননা নিয়মিত রাখার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাবো
০৩। মহল্লায় নতুন মালিকানা বসতিকে পরিষদের নিয়ম মোতাবেক আপনার সদস্য পদ গ্রহন করার অনুরোধ রইল।
০৪। উপস্তি সকল সদস্যদের মতামতের ভিত্তিতে একটি সদস্যদের মৃত্যু ফান্ড এককালীন পরিশোধ যোগ্যই। যাহা মাসিক চাঁদা হিসেব সদস্যদের প্রাপ্য অর্থ হতে পরিশোধযোগ্য।
০৫। সমাজসেবা অধিদপ্তর, চট্টগ্রাম হতে মুলকুতুর রহমান সড়ক মহল্লা উন্নয়ন পরিষদ নামে রেজিষ্ট্রেশন/নিবন্ধনভূক্ত করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি।
০৬। মহল্লার ব্যবহৃত সরু সড়ককে প্রশস্করণে উদ্যোগ গ্রহণ করব।
৭। মহল্লায় সকলে সরকারি সেবা গ্রহনে আমরা ভিবিন্ন ফোন নাম্বার বোর্ড স্হাপন করা হবে।
৬। এলাকাবাসীর নিরাপত্তার সার্থে সিসিক্যামরা স্থাপনের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি। যাহা অর্থ সংকটে কাজটি সম্পন্ন করা যায়নি। তাই আপনাদের সকলের সহযোগিতায় একান্ত প্রয়োজন।
০৭।মহল্লা পরিষদ সদস্য ব্যতিত মহল্লায় আর্থিক স্বচ্ছল বিশিষ্ট ব্যক্তিদের মাসিক চাঁদা ১০০ করে দেওয়ার প্রস্তাব করছি যাহা পত্র মারপত জানানো হবে সদস্যকে
০৮। মহল্লা সকল সদস্যদের অর্থনৈতিক স্বচ্ছলতা বিবেচনায় পরিষদের নামে ব্যবসায়িক শেয়ার চালু করে যৌথ ব্যবসা করার ব্যবস্থা করব। আপনাদের অংশগ্রহণ একান্ত কাম্য। উক্ত ব্যবসার লভ্যাংশ আপনার হিসাবে সদস্য নং হিসাবে- নগদ অর্থ জমা করা হবে (প্রতি শেয়ার এককালীন টাকা………….. আলোচনা সাপেক্ষে মাসিক চাঁদা ………….. প্রদান করতে হবে)।
সাধারণ সভায় যে সকল সম্মানিত সদস্য উপস্তি আছেন আপনাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। অনুষ্ঠান শেষ না হওয়া পর্যন্ত আপনি অনুষ্ঠানস্থলে উপস্থিত থেকে সভাকে সুন্দর, সাফল্যমন্ডিত করে তুলবেন। ও আপনার উপহার পরিষদ থেকে সম্মাননা স্মারক গ্রহণ করে আপনি পরিষদকে আলোকিত, অগ্রযাত্রায় অবিচল রাখবেন।
সভায় উপস্তি সম্মানিত অতিথি,ও সদস্য অত্র অনুষ্ঠানে আপনার মূল্যবান মতামত, পরামর্শ জানানোর জন্য বিনীত অনুরোধ রইল।
পরিশেষে কারো প্রতি অনুরাগ বা বিরাগ নয় সকলে বন্ধুত্বের বন্ধনে আবব্ধ হয়ে একে অপরের প্রতি সহানুভূতি সত্যের প্রতি দৃঢ়তা রেখে আসুন আমাদের নিজ নিজ দায়িত্ব কর্তব্য সম্পন্ন করি ও নিজ মহল্লার মাদক ও অসামাজিক কার্যকলাপ মুক্ত করে সামাজিক শিষ্টাচার প্রতিপালন পূর্বক নৈতিকতা মূল্যবোধে উজ্জ্বীবিত হই। আবারো সবার প্রতি আন্তরিক সালাম ও মোবারকবাদ জানিয়ে ও আপনাদের সকলের সুস্বাস্থ্যময় জীবন কামনা করে আমার সংক্ষিপ্ত বক্তব্য এখানে শেষ করছি। আল্লাহ সকলকে ভালো রাখুন। আসসালামু আলাইকুম।
সকলের প্রিয় প্রধান উপদেষ্টা এলাকার কৃতিসন্তান জনাব মাহবুব আলম বলেন, আমাদের সমাজে অনেক সমস্যা একনো বিদ্যমান । একদিনে তা সমাধান করা সম্বভ নয় । আমরা যদি মিলেমিশে,হিংসা বিদ্বেশ ভুলে একযোগে কাজ করি তাহলে সমাজের প্রতিটি ক্ষেত্রে উন্নয়ন সম্ভব।
সাংবাদিক হিসেবে সমাজের প্রতি আমার ব্যক্তিগত অনুরোধ ঃ-
মাত্র ১টি বছর যা কিছুই না, কিন্তু আমার মনে হয়, প্রাপ্তি অনেক। এই কমিটির সকল কর্মকর্তা ও সদস্য বিশেষ করে সভাপতি মুলকুকুতুর রহমান সড়ক মহল্লা উন্নয়ন পরিষদের সভপতির বক্তব্যে মো: সাঈদ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক জনাব জসিম উদ্দিন ও প্রধান উপদেষ্টা মো: মাহবুব আলম এর ভূমিকা অত্যন্ত দায়িত্বশীলতার প্রমাণ দিয়েছেন। ১ বছর বর্ষ পুর্তি পালন, এত আয়োজন আমি নগরীর বাইশ মহল্লাতেও দেখিনি। প্রয়াত ২২ মহল­ার সদ্দার ইউসুফ সাহেব ও আবদুল মাবুদ সর্দারদের সাথে আমার সাহচর্য ছিল । তারাও পারেননি ১ বছরে বর্ষ পুর্তি পালন করতে। তারা সবাই একটি রাজনৈতিক প্লাটফর্মে আবদ্ব ছিল । এখানে একটি লক্ষ্যণীয় বিষয় যে, এ সমাজের সকল শ্রেণীর মানুষের খুশি হওয়ার কথা যে, কমিটির উর্ধতনরা নির্লোভ এবং প্রকৃত সমাজসেবী । তারা অন্যেদের কাছে হাত না পেতে নিজেদের টাকা খরচ করে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে। আগামীতে এই কমিটি যে উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড হাতে নিয়েছে তাতে সকল সদস্যদের এবং সকলের অংশগ্রহণ একান্ত প্রয়োজন। শুধু ১০০ টাকা বা ৫০ টাকায় উন্নয়ন আশা করা যায় না। এই কমিটির আওতায় ধনীর চেয়ে গরিব বেশী, সবাইকে আর্থিক সহযোগিতার হাত বাড়াতে হবে। অন্যথায় উন্নয়ন সম্ভব নয়। সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক প্রধান উপদেষ্টাসহ সবাই সৎ এবং প্রজ্ঞাবান । তাদের প্রতি আমাদের গভীর শ্রদ্ধা ও বিশ্বাস করা উচিত। এখানে কিছু সময়ে মদ, জুয়া ও পুলিশের আনাগোনা ছিল, কমিটির প্রজ্ঞাবানদের প্রজ্ঞায় আজ সে সকল অপকর্ম নেই, যা এলাকার জন্য একটি বিরাট অর্জন। এখানে একটি বিষয় উলে­খযোগ্য যে, যা না বললে সমাজের অর্জন অপূর্ণ হয়ে থাকবে। যিনি ইসলামের পতাকা তলে, কোরআন, সুন্নাহ ভিত্তিক চলার একান্ত পরামর্শ ও উৎসাহ জুগিয়ে যাচ্ছেন, তিনি আমাদের সকলের প্রিয় ইমাম কাচা রাস্তা মসজিদ আল ইব্রাহিম এর খতিব ও বায়তুল জান্নাত ঈদগা মাদরাসা”র প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক আলহাজ্ব মাওলানা ফরিদুল আলম শাহ নগরী সাহেব । বায়তুল জান্নাহ মাদ্রারাসার প্রতিষ্ঠাতা উনার আগমনে ও অবস্থানে আজ শিরক, বেদাহ এবং অন্যান্য কুৎসংস্কার থেকে অনেকেই দূরে সরে গিয়েছি এবং বাকিরাও তার পরামর্শ মোতাবেক চলার চেষ্টা করছে, আল্লাহ তায়ালা উনাকে হায়াত দারাজ করুন এই প্রার্থনা সবার। বর্তমান সভাপতির মহানুবতায় এই সমাজে একটি মাদ্রারাসা প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে, যার প্রধান করিগর প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক আলহাজ্ব মাওলানা ফরিদুল আলম শাহ নগরী সাহেব. এই মাদ্রারাসার প্রতি দৃষ্টি দেওয়া সবার দায়িত্ব ও কর্তব্য। এই মাদ্রারাসা থেকে বের হবে হাফেজ এবং আলেম। যে যেভাবে পারে মাদ্রারাসাকে একটি আধুনিক মাদ্রারাসা হিসাবে গড়ে তোলার জন্য সবাইকে এগিয়ে আসতে আমি আহ্বান জানাচ্ছি। আমি কমিটির সকল কর্মকর্তা সদস্যবৃন্দদের কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করার জন্য অনুরোধ করছি। আমি সবাইকে আন্তরিক সালাম, মোবারকবাদ ও মহান আল্লাহর কাছে সকলের সুস্বাস্য কামনা করছি। আল্লাহ আমাদের সহায় হোন, সামনে আমাদের জাতীয় নিবার্চন আমি আশা করব এই সমাজে কেউ কারো প্রতি প্রতি হিংসাপরায়ণ যাতে না হয়। সবাইকে সবার ব্যক্তিগত মতামতের প্রতি শ্রদ্ধা রাখা একান্ত প্রয়োজন। বিবেদ বিদ্বেষ, কখনো কাম্য নয়, যা সমাজকে কলুষিত করে ,তাই আমরা প্রতিটি সমাজের মানুষ যার যা মনোভাব মনে রেখে প্রতি হিংসায় যেন জড়িয়ে না পড়ি।
অন্যাদের মধ্যে বক্তবয় রাখেন ,সহ-সভাপতি মুলকুতুর রহমান সড়ক, মহল্লা উন্নয়ন পরিষদ।মোঃ সেলিম কোঃ, মোঃ রোমান চৌধুরী দপ্তর সম্পাদক।মোঃ বেলাল সাংগঠনিক সম্পাদক,আমন্ত্রিত অথিতি আলহাজ্ব মোঃ সফি সত্তঃ, মিজানুর রহমান, সাধারণ সদস্য মোঃ সাদ্দাম হোসেন,অত্র পরিষদ পক্ষ থেকে এস.এস.সি/এইচ.এস.সি কৃতি শিক্ষাথীদের সম্মামনা পুরষ্কার দেওয়া হয়।গুণিজনদেরকে পরিষদেরক্ষ থেকে সম্মাননা দেওয়া হয়। এছাড়াও আয়েজিত ফুটবল টুর্নামেন্টের বিজয়ী ও রানার্সআপ ও সেরা গোল দাতাকে পুরুষ্কৃত করা হয়।

ফেইসবুকে নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন


Archive

© All rights reserved © 2021 Dainiksomor.net
Design & Developed BY N Host BD